সব তীর্থের আঁকাবাঁকা পথ ঘুরে প্রেমের তীর্থে মিশলেন রুমা

2,301 total views, 6 views today

গত ৩ রা জুন আপামর গুণমুগ্ধ শ্রোতা-দর্শক এবং অগণিত শিষ্য শিষ্যাদের কাঁদিয়ে চিরতরে অমৃতলোকে যাত্রা করেছেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী, সুগায়িকা তথা ক্যালকাটা ইয়ুথ কয়্যার এর যৌথ প্রতিষ্ঠাত্রী শ্রীমতি রুমা গুহ ঠাকুরতা। ঘুমের মধ্যেই চিরঘুমের দেশে পাড়ি দিয়েছেন সকলের খুব কাছের রুমা দি। লোকসংগীত এবং গণসংগীত কে মানুষের মাঝে জনপ্রিয় করার জন্য ১৯৫৮ সালে রুমা গুহ ঠাকুরতা যৌথভাবে দুই দিকপাল সলিল চৌধুরী ও সত্যজিৎ রায়ের সঙ্গে প্রতিষ্ঠা করেন ক্যালকাটা ইউথ কয়্যার এর।

মূলত রুমা গুহ ঠাকুরতার তত্ত্বাবধানে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম, দ্বিজেন্দ্রলাল রায়, রজনীকান্ত সেন প্রমুখ কালজয়ী গীতিকারের বিভিন্ন গান পরিবেশন করা হয়েছে। এই ক্যালকাটা ইয়ুথ কয়্যার’ই সম্প্রতি আয়োজন করেছিল প্রয়াত রুমা গুহ ঠাকুরতার স্মরণ সভার। উপস্থিত ছিলেন প্রয়াত শিল্পীর কন্যা শ্রমনা গুহঠাকুরতা, যিনি এই কয়্যার’রই সদস্যা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সঙ্গীতশিল্পী ঊষা উত্থুপ, কল্যাণ সেন বরাট, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেসনস (ICCR) এর রিজিওনাল ডিরেক্টর গৌতম দে প্রমুখরা।

গানে, স্মৃতিচারণায় অপূর্ব এক অনুষ্ঠানের সাক্ষী ছিলো কানায় কানায় পরিপূর্ণ ICCR এর রবীন্দ্রনাথ টেগর সেন্টার অডিটোরিয়াম। পর্দায় রুমা দেবীর বিভিন্ন বয়সের, বিভিন্ন মুহূর্তের ছবি দেখে মনে হচ্ছিল তিনি যেন আমাদের মধ্যেই আছেন। আছেন তাঁর গানের মধ্যে দিয়ে, তাঁর কাজের মধ্যে দিয়ে। একজন শিল্পীর কখনোই মৃত্যু হয় না। শিল্পী বেঁচে থাকেন তাঁর শিল্পীসত্ত্বা, শিল্প কর্মের মধ্যে দিয়ে গুণমুগ্ধের মনের মনিকোঠায়।

“ভারতবর্ষ সূর্যের এক নাম” সহ আরো কিছু বিখ্যাত কয়্যার এর গান উপস্থাপন করেন কয়্যারের সদস্য সদস্যারা। সঙ্গীত শিল্পী ঊষা উথুপের স্মৃতিচারণায় এক আবেগঘন মুহূর্তে সৃষ্টি হয়েছিল। তাঁর কথায় বারবার ফিরে আসছিল তাদের কাটানো বিভিন্ন মধুর স্মৃতি।

উষা উথুপের কথায়, “আমি প্রত্যেকদিন সকালে মাথায় ফুল লাগাই। কিন্তু কাজের জন্য রাজস্থান বা আসামে গেলে অনেক সময় ফুল পাওয়া যেত না, তখন আমাকে ফুল ব্যবহারের উপায় বলে দিয়েছিলেন রুমা দি। আমার ভীষণ কাছের রুমা দি। আমাদের একসাথে কাটানো বিভিন্ন আড্ডার মুহূর্ত গুলো আজ আরও বেশি করে মনে পড়ছে।

রুমা দি যেখানেই থাকুন ভালো থাকুন।”

Reach The Perspective